• ঢাকা, বাংলাদেশ রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৫৬ অপরাহ্ন

রাজশাহীতে সব বই আসেনি এখনো

রিপোর্টার নাম:
আপডেট সোমবার, ২ জানুয়ারী, ২০২৩

রাজশাহীতে সব বই আসেনি এখনো

নিজস্ব প্রতিবেদক
বছরের প্রথম দিন রোববার রাজশাহীর স্কুলে স্কুলে শিক্ষার্থীদের হাতে পৌঁছতে শুরু করেছে নতুন বই। স্কুলে স্কুলে হয়েছে বই উৎসব। নতুন বই হাতে পেয়ে উচ্ছ্বসিত হয়েছে শিশুরা। প্রাথমিকের প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেনীর শিক্ষার্থীরা তাদের সব বইই পাচ্ছে। তবে, অন্য শ্রেনীর শিক্ষার্থীরা প্রথম দিনে সব বই পাচ্ছে না। শিক্ষা কর্মকর্তারা বলছেন, যেসব বই এখনো আসেনি সেগুলো খুব শিগগিরই চলে আসবে। আপাতত ২/১টা বই তারা কম পাচ্ছে।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের তথ্যমতে, রাজশাহীতে প্রাথমিক পর্যায়ে মোট ৩ লাখ ৫ হাজার শিক্ষার্থীর জন্য বইয়ের চাহিদা রয়েছে ১৩ লাখ ১১ হাজার টি। এর বিপরিতে বই পাওয়া গেছে প্রায় ৯লাখ ৭০ হাজারটি। প্রাথমিক স্তরের নতুন বই মিলেছে ৭৪ শতাংশ।
জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানাগেছে, নিম্নমাধ্যমিক, মাধ্যমিক, কারিগরি ও মাদরাসা পর্যায়ে ৩ লাখ ৩১ হাজার ১৮০ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। মাধ্যমিক স্তরে ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত ৪৫ লাখ ২১ হাজার পাঠ্যবইয়ের চাহিদা আছে।
মাধ্যমিক স্তরে বই মিলেছে ৫৫ শতাংশের কিছু বেশি। নতুন বইগুলো রাজশাহীর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে কোনো কোনো উপজেলায় ৪০ শতাংশ এবং কোথাও ৬০ শতাংশ বই পৌঁছেছে। কিছু শ্রেণির সব পাঠ্যবই এসেছে। আবার কোনোটিতে দু-তিনটি বিষয়ের বই এসেছে।
রাজশাহী জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহা. নাসির উদ্দিন বলেন, যেসব বই এসছে সেগুলো বিতরণ করা হচ্ছে। এখনো পুরো বই আসেনি, যেগুলো আসেনি সেগুলো দ্রুত চলে আসবে বলে আশা করছি।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম বলেন, তারা বেশির ভাগ বই হাতে পেয়েছেন। প্রথম এবং দ্বিতীয় শ্রেনীর সব বই এসেছে। ৩য় ৪র্থ এবং ৫ম শ্রেনীর কিছু বই আসেনি। এগুলো আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই চলে আসবে। তিনি বলেন, সব শ্রেনীর বই এসেছে। যেসব সেট এসেছে সেগুলো পূর্ণাঙ্গই। তবে এখনো প্রায় ২৬ ভাগ বই আসেনি। একারণে ৩য় ৪র্থ এবং ৫ম শ্রেনীর শিক্ষার্থীদের কিছু কিছু করে বই দেয়া হচ্ছে। কারো বাংলা, কারো অংক, কারো সমাজ, কারো ধর্ম বই এভাবে কিছু কিছু বই বাকি রাখা হচ্ছে। সেগুলো খুব তাড়াতাড়িই চলে আসবে। চলে আসলেই তা আবারো শিক্ষার্থীদের দেয়া হবে।
রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. নুরজাহান বেগম বলেন, রাজশাহীর সব স্কুলেই শতভাগ বই পাওয়া যায় নি। আমাদের স্কুলেও শতভাগ বই নেই। যে বইগুলো পাওয়া গেছে সেগুলো দিয়েই আজকে বই বিতরণ করা হচ্ছে। আগামীকাল থেকেই এবছরে ক্লাস শুরু হবে। তবে অধিকাংশ ক্লাসের এখনও সব বই হাতে পাওয়া যায় নি। বিশেষ করে নতুন কারিকুলামের ৬ষ্ট শ্রেনী ও ৭ম শ্রেণীর বই এখনও হাতে পাওয়া যায়নি। যেহেতু আগামীকাল থেকেই ক্লাস হবে। অন্য স্কুলের সাথে আলোচনা করে আমরা এগুলো নিয়ে সিদ্ধান্ত নিবো।
রাজশাহী জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল বলেন, বই উৎসবের মাধ্যমে রাজশাহী জেলায় ৫লাখ ৭০ হাজার শিক্ষার্থীর মাঝে আজ বই বিতরণ করা হয়েছে। জেলায় এ পর্যন্ত ৮০ ভাগ বই আমরা পেয়েছি। বাকি বই আমাদের অন দ্যা ওয়েতে আছে। যে দু একটা বই বাকি আছে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সেগুলো চলে আসবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরিতে আরো নিউজ