• ঢাকা, বাংলাদেশ সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৩১ পূর্বাহ্ন

মোহনপুরে নৌকার পক্ষে কাজ করায় এমপি সমর্থকদের হামলায় আহত ৩

রিপোর্টার নাম:
আপডেট বুধবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক
রাজশাহীর মোহনপুরে বর্তমান এমপি ও বিদ্রোহী প্রার্থী আয়েন উদ্দিনের লোকজনের মারধরে আওয়ামী লীগের তিন কর্মী আহত হয়েছেন। আসন্ন নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে কাজ করায় এ হামলা চালানো হয়েছে বলে আহতদের দাবি।
বুধবার সকালে মোহনপুর উপজেলার বাকশিমইল ইউনিয়নের সিন্দুরীগ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে।
আহতরা হলেন-একই গ্রামের মাহবুব আলম, মুরাদুল ইসলাম ও এরশাদ আলী। তারা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তারা সবাই রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোহা. আসাদুজ্জামান আসাদের কর্মী।
জানতে চাইলে আহত মাহবুব আলম বলেন, আমরা সবাই আসাদ ভাইয়ের নৌকার জন্য কাজ করি। এজন্যই বর্তমান এমপি আয়েনের লোক আমজাদ, আজাদ, নাজমুল, আলম, লতিফ, মুরাদ, জাহাঙ্গীরসহ বেশ কয়েকজন মিলে আমাদের উপর হামলা করেছে। তারা আমাদেরকে এলোপাথারি মারধর করেছে।
আহত মুরাদুল ইসলাম বলেন, নৌকার পক্ষে ভোট করার কারণে আমাদের মারার জন্য তারা আগে থেকেই পরিকল্পনা করছিল। মঙ্গলবার বিকেলে এমপি আয়েনের লোকজন আমার বাড়ি ঘিরে রেখেছিল। তখন আমি বাহিরে ছিলাম। আমার চাচা ফোন করে বললেন, ‘বাবা, বাড়িতে এসো না। তুমি আসাদের ভোট করো তাই আয়েনের লোকজন বাড়ি ঘিরে রেখেছে। তোমাদের মারবে।’ পরে পুলিশকে জানালে তারা এসে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে। যারা বাড়ি ঘিরে রেখেছিল তাদের ও আমাদের থানায় দেখা করতে বলে যায় পুলিশ।


তিনি আরও বলেন, বুধবার সকালে আমি ও আমার বাবা পটলের জমিতে কাজ করতে যাই। সেখানে তারা এসে অতর্কিত হামলা চালায়। হামলাকারীরা সবাই এমপি আয়েনের কাছের লোক। আমরা নৌকার পক্ষে ভোট করছি বলে এভাবে মেরেছে।
এ ব্যাপারে মোহনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হরিদাস পাল বলেন, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে হামলায় তিন জন আহতের ঘটনা শুনেছি। তারা হাসপাতালে ভর্তি আছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করে নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
এ ব্যাপারে এমপি আয়েন উদ্দিনের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।
এদিকে, হামলার শিকারদের পক্ষে বুধবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করেছে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা কর্মীরা। সংবাদ সম্মেলনে তারা দাবি করেন, আয়েন উদ্দিন সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই এলাকার মানুষ নির্যাতনের শিকার। আওয়ামীলীগের ত্যাগি নেতা কর্মীরাও বছরের পর বছর নির্যাতিত হয়ে আসছে। এবারে এই আসনে তাকে মনোনয়ন না দিয়ে আসাদুজ্জামান আসাদকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ায় আমরা দেশনেত্রী শেখ হাসিনার কাছে কৃতজ্ঞ। এলাকার আওয়ামীলীগ নেতা কর্মী ছাড়াও সাধারণ মানুষ সতস্ফুর্তভাবে আসাদের পক্ষে মাঠে নেমেছে। এটা সহ্য করতে পারছেন না এমপি ও তার বাহিনীর লোকজন। এরই ফলশ্রুতিতে তিনজন নৌকা সমর্থকের উপর হামলা চালিয়ে আহত করেছে তারা।
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন, মোহনপুর আওয়ামীলীগের প্রবীণ নেতা এনামুল হক ও ঘাসিগ্রাম ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আফজাল হোসেন বকুল ও নির্যাতিত আওয়ামীলীগ নেতা সুরঞ্জিত সরকার। এছাড়া জেলা যুবলীগের সাবেক সহ সভাপতি আলমগীর মোর্সেদ রঞ্জু, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি মজিবর রহমান, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আল মমিন শাহ গাবরু, উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক সভাপতি বিন বিল্লাহ, আওয়ামীলীগ নেতা সুলতান আলী, উপজেলা কৃষকলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক শেখ হাবিবা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরিতে আরো নিউজ