• ঢাকা, বাংলাদেশ শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:২৭ পূর্বাহ্ন

বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেনে আগুন, ৪ জনের মৃত্যু

রিপোর্টার নাম:
আপডেট শুক্রবার, ৫ জানুয়ারী, ২০২৪

বাংলার কথা ডেস্ক

রাজধানীর গোপীবাগে বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের কয়েকটি ইউনিট কাজ করে। আগুনের ঘটনায় এ পর্যন্ত চারজনের লাশ উদ্ধারের তথ্য জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস। এছাড়া অগ্নিদগ্ধ এক যাত্রীকে শেখ হাসিনা বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

 

বেনাপোল থেকে যাত্রী নিয়ে ট্রেনটি ঢাকায় আসছিল। ট্রেন থেকে চারজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে বলে ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মাইন উদ্দিন জানিয়েছেন। তিনি জানান, নিহতদের মধ্যে দুই শিশু রয়েছে।

ট্রেনে আগুন দেয়া হয়েছে নাকি অন্য কোনো কারণে আগুন লেগেছে তা তাৎক্ষণিক জানা যায়নি।

শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) রাত ৯টা ৫ মিনিটে আগুন লাগার খবর পায় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স। ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার রাকিবুল হাসান জানান, কমলাপুরের গোপীবাগ এলাকায় বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেনে আগুন লাগার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট রওনা হয়। পরে আরো কয়েকটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়।

 

ওদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেনাপোল থেকে যাত্রী নিয়ে ট্রেনটি কমলাপুর আসছিল। কমলাপুর পৌঁছার কিছু আগে গোপীবাগ কাঁচাবাজারের কাছে ট্রেনটিতে আগুন লাগে। অন্তত চারটি বগিতে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলতে দেখা যায়।

 

এর আগে গত ১৯ ডিসেম্বর রাজধানীর তেজগাঁও স্টেশনে মোহনগঞ্জ এক্সপ্রেসে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। আগুনে ট্রেনটির তিনটি বগি পুরোপুরি পুড়ে যায়। পরে একটি বগি থেকে মা ও শিশুসহ চারজনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

এ নিয়ে দেশে গত ২৮ অক্টোবরের পর ট্রেনে আগুনের ঘটনায় মোট আটজনের মৃত্যু হলো।

 

আজকে ট্রেনে আগুনের ঘটনায় দগ্ধ হাসিব (৩০) নামের একজনকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নেওয়া হয়েছে। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, তাঁর শরীরের আট শতাংশ পুড়ে গেছে।

 

গোপীবাগের বাসিন্দা রাসেল হোসেন  বলেন, রেললাইনের কাছেই তাঁর বাসা। রাত ৯টার দিকে হঠাৎ মানুষ চিৎকার শুনে তিনি বাসা থেকে বেরিয়ে দেখেন, ট্রেনটিতে দাউদাউ করে আগুন জ্বলছে। অনেকে তাড়াহুড়া করে ট্রেন থেকে নামছেন।

 

সৈয়দ ফায়েজ আহমেদ নামে একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, আগুন ট্রেনের কয়েকটি বগিতে ছড়িয়ে পড়েছিল। ঘটনার পরপরই এলাকাবাসী যে যার মতো করে পানি দিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন।

 

এর কিছুক্ষণ পর ফায়ার সার্ভিসের আটটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভানোর কাজে যোগ দেয়। ফায়ার সার্ভিসের এক বার্তায় বলা হয়, দুর্বৃত্তরা বেনাপোল এক্সপ্রেসের চারটি বগিতে আগুন দিয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের আটটি ইউনিটের চেষ্টায় রাত ১০টা ২০ মিনিটের দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

 

সূত্র: মানবজমিন ও প্রথম আলো

বাংলার কথা/জানুয়ারি ০৫, ২০২৪

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরিতে আরো নিউজ