Home » উত্তরের খবর » রাজশাহীর সরকারি অবকাঠামো নির্মাণে অবদান রাখছে গণপূর্ত বিভাগ-১
রাজশাহীর সরকারি অবকাঠামো নির্মাণে অবদান রাখছে গণপূর্ত বিভাগ-১

রাজশাহীর সরকারি অবকাঠামো নির্মাণে অবদান রাখছে গণপূর্ত বিভাগ-১

নিজস্ব প্রতিবেদক ০
রাজশাহী মহানগর এবং জেলার পবা, চারঘাট ও বাঘা উপজেলার বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো নির্মাণে অসামান্য অবদান রেখে চলেছে গণপূর্ত বিভাগ-১। ২০০৯ সাল থেকে চলতি বছর পর্যন্ত আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে ৮৩ কোটি ৬২ লাখ ১ হাজার টাকার নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। এছাড়া আরো প্রায় ৫০০ কোটি ৩৩ লাখ ৮২ হাজার টাকার অবকাঠামো নির্মাণ কাজ চলছে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে এসব অবকাঠামোর নির্মাণ কাজ শেষ করতে নিয়মিত তদারকি চালিয়ে যাচ্ছেন রাজশাহী গণপূর্ত বিভাগ-১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মাসুদ রানা। তিনি জানান, সিডিউল অনুযায়ি নির্মাণ কাজ শেষ করতে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারদের প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে। তাদের কাছ থেকে শতভাগ কাজ আদায় করতে আমরা কোনো ছাড় দিচ্ছি না। কাজের গুণগত মান নিয়ে কোনো আপোষ নেই। সরকারি কাজের প্রতি এই দায়বদ্ধতার জন্য রাজশাহী জেলা প্রশাসক গত মার্চ মাসে জেলার শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তা নির্বাচন করেছেন নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মাসুদ রানাকে।

 

রাজশাহী গণপূর্ত বিভাগ-১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী জানান, ২ কোটি ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে রাজশাহী চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবনের নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে ২০১৭ সালে। ২০১৩-১৪ অর্থবছরে ২ কোটি ৬২ লাখ টাকা ব্যয়ে রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনারের বাসভবন এবং পরের অর্থবছরে ২ কোটি ৪৮ লাখ ৮৫ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছে শাহ মখদুম থানায় ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার। ২০১০-১১ অর্থবছরে ১ কোটি ২২ লাখ ১৫ হাজার টাকায় নির্মাণ করা হয়েছে জেলা রেকর্ড রুম।

 

নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মাসুদ রানা 

 

নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মাসুদ রানা জানান, আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে বেশ কিছু ভৌত অবকাঠামো নির্মাণ করা হয়েছে। এর মধ্যে ২০১১ সালে ১৩ কোটি ৬ লাখ ৫৮ হাজার টাকায় দ্বিতীয় একাডেমিক ভবন, ২০১২ সালে ২ কোটি ৭ লাখ ২০ হাজার টাকায় এএসপি’র কোয়ার্টার, ৩ কোটি ৭৬ লাখ ৭৪ হাজার টাকায় জিমনেসিয়াম, ৬ কোটি ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ে সুইমিং পুল, ২৯ লাখ ৩৯ হাজার টাকায় মহিলা টিআরসি ব্যারাক, ১ কোটি ৯৭ লাখ ৯৭ হাজার টাকা ব্যয়ে আরসিসি প্যারেড গ্রাউন্ড, ২০১৩-১৪ অর্থবছরে ৮১ লাখ ৫৪ হাজার টাকায় নতুন ম্যাগাজিন বিল্ডিং, ৪৩ লাখ ৪০ হাজার টাকায় মিউজিক স্কুল, ১ কোটি ৫৭ লাখ ৬৩ হাজার টাকা ব্যয়ে নন-গেজেটেড ডরমেটরি ও ৫ কোটি ৯৮ লাখ ৮৪ হাজার টাকা দিয়ে উর্মি নামক নিউ গেষ্ট হাউজ, ২০১৪-১৫ অর্থবছরে ৫ কোটি ২৫ লাখ ৬ হাজার টাকা দিয়ে প্যারেড গ্রাউন্ড ও স্যলুটিং ডায়াস, ২০১২-১৩ অর্থবছরে ১ কোটি ৫৭ লাখ ৬৩ হাজার টাকা ব্যয়ে ডক্টরস কোয়ার্টার এবং ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ৩ কোটি টাকা দিয়ে তরুণিমা নামক নিউ গেষ্ট হাউজের নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে।

 

এদিকে ২০১২ সালে ১ কোটি ৫৪ লাখ ৮২ হাজার টাকা ব্যয়ে চারঘাট উপজেলায় ফায়ার সার্ভিস স্টেশন নির্মাণ করেছে রাজশাহী গণপূর্ত বিভাগ-১। পরের বছর চারঘাটে ফায়ার সার্ভিস ডেলিভারি সেন্টার নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৯০ লাখ ২১ হাজার টাকা। এছাড়া ২০১১-১২ অর্থবছরে ২ কোটি ৬১ লাখ ২২ হাজার টাকা দিয়ে রাজশাহী জেলা ও বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিস, ২০১৩-১৪ অর্থবছরে ১ কোটি ৫৯ লাখ ১৪ হাজার টাকা ব্যয়ে জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স এবং ২০১২-১৩ অর্থবছরে৩ কোটি ৪৮ লাখ ২৯ হাজার টাকা দিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে নির্বাচন কমিশনের আঞ্চলিক সার্ভার স্টেশন।

 

এদিকে, নগরীর শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যান ও চিড়িয়াখানার জায়গায় ২২২ কোটি ৩ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নভোথিয়েটার স্থাপন প্রকল্পের কাজ শুরু করেছে রাজশাহী গণপূর্ত বিভাগ-১। এছাড়া শুরু হয়েছে বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে বেশ কিছু ভৌত অবকাঠামো নির্মাণ কাজ। এর মধ্যে রয়েছে ১৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ৬ তলা ব্যারাক ভবন-১, তিন কোটি ৩৯ লাখ ৭২ হাজার টাকা ব্যয়ে টিআরসি ব্যারাক ভবন-১, ২ ও ৩ এর উর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ, এক কোটি ২১ লাখ ৫৮ হাজার টাকা ব্যয়ে ওসি/ডিসি ব্যারাক ভবনের উর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ, ৯৭ লাখ ২৩ হাজার টাকা ব্যয়ে মহিলা ব্যারাক ভবনের উর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ, ২ কোটি ৫৯ লাখ ৯৫ হাজার টাকা ব্যয়ে ৬ তলা ভিত বিশিষ্ট মহিলা ব্যারাক ভবনের ৩য় ও ৪র্থ তলার নির্মাণ কাজ, এক কোটি ১৯ লাখ ৩১ হাজার টাকা ব্যয়ে গেজেটের ডরমেটরি ভবনের ৪র্থ ও ৫ম তলার নির্মাণ কাজ, ৭ কোটি ৫০ লাখ ৯৬ হাজার টাকা ব্যয়ে বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী ভবন, ১৫ কোটি ৫৬ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে ৬ তলা ভিত বিশিষ্ট ব্যারাক ভবন-২, পাঁচ কোটি ৫৬ লাখ টাকা ব্যয়ে উর্মি নামক নিউ গেষ্ট হাউজের উর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ, ৩ কোটি ৮ লাখ ১০ হাজার টাকা দিয়ে ২য় একাডেমিক ভবনের উর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ, এক কোটি ৬৭ লাখ ৩৬ হাজার টাকা দিয়ে এএসপি (প্রবি) ভবনের ৬ষ্ঠ তলার উর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণের নির্মাণ কাজ।

 

এছাড়া ৩ কোটি ৯৬ লাখ ৭৮ হাজার টাকা ব্যয়ে রাজশাহী কারাগারে মহিলা কারারক্ষীদের জন্য আবাসিক ভবন, ৭৩ কোটি টাকা ব্যয়ে কারা প্রশিক্ষণ একাডেমির নির্মাণ কাজ শুরু করেছে রাজশাহী গণপূর্ত বিভাগ-১। রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম তলার উর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণের নির্মাণ কাজে ব্যয় করা হচ্ছে ১০ কোটি ২০ লাখ ৭৬ হাজার টাকা। ৮ কোটি ৯৭ লাখ ৯৩ হাজার টাকা ব্যয়ে রাজশাহী মহানগর পুলিশ সদর দপ্তরের (পূর্ব ও পশ্চিম) নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। দুই কোটি ৩১ লাখ ৫৫ হাজার টাকা ব্যয়ে ৬ তলা ভিতসহ মহানগর পুলিশের তালাইমারী ও মালোপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ১ম তলার নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। রাজশাহী বিভাগীয় এনএসআই কার্যালয়ের নির্মাণ কাজে ব্যয় করা হচ্ছে ৩ কোটি ৪৪ লাখ ৮৯ হাজার টাকা।

 

এদিকে ২ কোটি টাকা ব্যয়ে বাঘা উপজেলায় ফায়ার সার্ভিস স্টেশন ভবনের নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। ১৪ কোটি ৪৫ লাখ ৪৮ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল। ২ কোটি সাড়ে ৬ লাখ টাকা দিয়ে বাঘা ও চারঘাট উপজেলায় কৃষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের নির্মাণ কাজও শুরু হয়েছে। নগরীর বোয়ালিয়া ও বাঘা উপজেলা ভূমি অফিসের নির্মাণ কাজে ব্যয় করা হচ্ছে ৪ কোটি টাকা। এছাড়া ১৭ কোটি ৯৬ লাখ ৯৬ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে নগরীতে পুলিশ ব্যারাক নির্মাণের কাজ। আর পুলিশ লাইনে ৮ কোটি ২৭ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে নারী ব্যারাকের নির্মাণ কাজ। এদিকে নগরীতে দুটি এবং পবা, চারঘাট ও বাঘা উপজেলায় একটি করে মডেল মসজিদের নির্মাণ কাজ শুরু করেছে রাজশাহী গণপূর্ত বিভাগ-১। এজন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ৭০ কোটি টাকা।

 

বাংলার কথা/এপ্রিল ১২, ২০১৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*