Home » উত্তরের খবর » রাজশাহীতে বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছে আওয়ামীলীগ  
রাজশাহীতে বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছে আওয়ামীলীগ  

রাজশাহীতে বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছে আওয়ামীলীগ  

নিজস্ব প্রতিবেদক ০

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজশাহীতে বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছে আওয়ামীলীগ।  ছয়টি সংসদীয় আসনেই নৌকার প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। রোববার (৩০ ডিসেম্বর) ভোটগ্রহণ ও গণনা শেষে রাতে রিটার্নিং কর্মকর্তা জেলা প্রশাসক এস এম আব্দুল কাদের বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করেন।

 

বিজয়ী প্রার্থীরা হলেন, রাজশাহী-১ (গোদাগাড়ী-তানোর) আসনে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী, রাজশাহী-২ (সদর) আসনে মহাজোটের শরিক বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনে আওয়ামীলীগের আয়েন উদ্দিন, রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনে বাগমারা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক, রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনে জেলা আওয়ামীলীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক  ডা. মনসুর রহমান ও রাজশাহী-৬ (বাঘা-চারঘাট) আসনে বাঘা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। এদের মধ্যে ওমর ফারুক চৌধুরী, ফজলে হোসেন বাদশা, ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক টানা তৃতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেন। আয়েন উদ্দিন সংসদ সদস্য হলেন দ্বিতীয় মেয়াদে। আর প্রথমবারের মতো নির্বাচনে অংশ নিয়ে বিজয়ী হলেন ডা. মনসুর রহমান।

 

রোববার রাতে রিটার্নিং কর্মকর্তা যে ফলাফল ঘোষণা করেন, তাতে দেখা যায় রাজশাহী-১ আসনে ওমর ফারুক চৌধুরী পেয়েছেন ২ লাখ ৩ হাজার ৪৭৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আমিনুল হক ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ১ লাখ ১৮ হাজার ৯৮ ভোট।

 

নৌকা প্রতীকে রাজশাহী-২ আসনে ফজলে হোসেন বাদশা পেয়েছেন ১ লাখ ১৫ হাজার ৪৫৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু ধানের শীষ নিয়ে পেয়েছেন ১ লাখ ৩ হাজার ৩২৭ ভোট।

 

রাজশাহী-৩ আসনে নৌকা প্রতীকে আয়েন উদ্দিন পেয়েছেন ২ লাখ ১১ হাজার ৩৮৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী রাজশাহী মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ৮০ হাজার ৮০৬ ভোট।

 

রাজশাহী-৪ আসনে বিজয়ী ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক পেয়েছেন ১ লাখ ৯০ হাজার ৪১২ ভোট।  আর ধানের শীষ নিয়ে বিএনপির আবু হেনা পেয়েছেন মাত্র ১৪ হাজার ১৫৭ ভোট। অবশ্য কারচুপির অভিযোগ তুলে দুপুরেই তিনি নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছিলেন।

 

রাজশাহী-৫ আসনে নৌকা প্রতীকের নতুন মুখ ডা. মনসুর রহমান পেয়েছেন ১ লাখ ৮৭ হাজার ৩৭০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির অধ্যাপক নজরুল ইসলাম মণ্ডল পেয়েছেন ২৮ হাজার ৬৮৭ ভোট।

 

রাজশাহী-৬ আসনে শাহরিয়ার আলম নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২ লাখ ৬০ হাজার ৫৪৩ ভোট। এ আসনে বিএনপির কোনো প্রার্থী ছিল না। ২৫ হাজার ৪৩২ ভোট পেয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী আবদুস সালাম সুরুজ।

 

রাজশাহীর ছয় আসনে এবার প্রতিদ্বন্দ্বীতায় ছিলেন ২৫ জন প্রার্থী। রাজশাহী মহানগরী ও জেলার ৯ উপজেলায় এবার ভোটার ছিলেন ১৯ লাখ ৪২ হাজার ৫৬২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৯ লাখ ৬৭ হাজার ৭১০ জন এবং নারী ৯ লাখ ৭৪ হাজার ৮৫২ জন। এর আগে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজশাহীতে মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ১৭ লাখ ৪২ হাজার ৬৫৭ জন।

 

বাংলার কথা/ডিসেম্বর ৩১, ২০১৮

 

 

 

 

 

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*