Home » উত্তরের খবর » রাবিতে জাতীয় বিতর্ক উৎসবের চ্যাম্পিয়ন টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়
রাবিতে জাতীয় বিতর্ক উৎসবের চ্যাম্পিয়ন টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়

রাবিতে জাতীয় বিতর্ক উৎসবের চ্যাম্পিয়ন টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়

রাবি প্রতিনিধি ০
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) বিতর্ক সংগঠন গ্রুপ অব লিবারেল ডিবেটারস্ (বাংলাদেশ) আয়োজিত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়। আজ শুক্রবার (২৩ নভেম্বর) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ স্মৃতি সংগ্রহশালা মুক্তমঞ্চে দুই দিনব্যাপী প্রতিযোগিতার সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

‘মর্যাদায় গড়ি সমতা’ প্রতিপাদ্যে ‘মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন’র সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় রানার্সআপ হয়েছে আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

সমাপনী অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়া বলেন, একাডেমিক পড়াশোনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীরা কো-কারিক্যুলাম কার্যক্রমের প্রতি আগ্রহী হয়ে উঠছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অরাজনৈতিক সংগঠনগুলো তাদের মানসিক বিকাশের সুযোগ করে দিয়ে জ্ঞান আহরণে স্বার্থক করে তুলছে। গোল্ড বাংলাদেশের মতো বিতর্ক সংগঠনগুলোর মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা শুধু যুক্তিবাদী হয়ে উঠছে। বিতর্কের সময় সঠিক শব্দচয়ন, শব্দপ্রয়োগ ও যুক্তির সমন্বয়ের মাধ্যমে তারা বিশ্বায়নের সাথে তাল মেলাবার জন্য প্রস্তুত হচ্ছে। এই তরুণদের হাত ধরেই বাংলাদেশ ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ বাস্তবায়নের পথে এগিয়ে যাবে।

মানুষের জন্য ফাউণ্ডেশন’র জেণ্ডার অ্যাডভাইজার বনশ্রী মিত্র নিয়গী বলেন, মানবাধিকার, প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর ক্ষমতায়ন, অভিবাসী ও পোশাক শ্রমিকদের অধিকার নিয়ে আমরা কাজ করছি। তরুণদের সম্পৃক্ত করতে আমরা এই আয়োজনে যুক্ত হয়েছি। তারুণ্যই শক্তি, তরুণরাই দেশকে এগিয়ে নিবে আর তরুণদের ইচ্ছাশক্তিই পারে সমাজ পরিবর্তন করতে।

সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান ও সদস্য জান্নাতুল জান্নাতের সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন-উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক লায়লা আরজুমান বানু, সাবেক ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ছাদেকুল আরেফিন মাতিন। স্বাগত বক্তব্য দেন গোল্ড বাংলাদেশ’র মডারেটর ও সমাজকর্ম বিভাগের অধ্যাপক রবিউল ইসলাম। সভাপতিত্ব করেন সংগঠনটির সভাপতি সোহরাব হোসেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- ব্যবসায় অনুষদের অধিকর্তা অধ্যাপক হুমায়ুন কবীর, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা হলের প্রাধ্যক্ষ বিথীকা বণিক, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মামুন আ. কাইয়ুম ও গোল্ড বাংলাদেশ’র সাবেক সভাপতি কাজী সফিক। পরে একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বাংলার কথা/আলী ইউনুস হৃদয়/নভেম্বর ২৩, ২০১৮

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*