Home » উত্তরের খবর » ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ক্রীড়ানুশীলনের বিকল্প নেই: শিক্ষামন্ত্রী
ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ক্রীড়ানুশীলনের বিকল্প নেই: শিক্ষামন্ত্রী

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ক্রীড়ানুশীলনের বিকল্প নেই: শিক্ষামন্ত্রী

বাংলার কথা ডেস্ক ০

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ক্রীড়ানুশীলনের বিকল্প নেই। ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েরাও ইতোমধ্যে প্রশংসীয় সাফল্য অর্জন করার বাংলাদেশ বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে সক্ষম হয়েছে।

আজ রোববার বেলা ১১টার দিকে রাজশাহীর সরকারি শারীরিক শিক্ষা কলেজ মাঠে ’৪৭তম গ্রীষ্মকালীন জাতীয় স্কুল, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন এবং আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

বাংলাদেশ জাতীয় স্কুল, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা ক্রীড়া সমিতির আয়োজিত অনুষ্ঠানে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা বক্তব্য দেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, খেলাধুলা, শরীরচর্চা ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড শিক্ষার্থীদের শারীরিক ও মানসিক বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। নেতৃত্বের গুনাবলী বিকাশে এগুলোর অবদান রয়েছে। তাই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড বাড়াতে হবে। খেলাধুলা মাদক ও জঙ্গিবাদ থেকে ছেলেমেয়েদের দূরে রাখবে।নতুন প্রজন্মকে ভবিষ্যৎ বাংলাদেশের নির্মাতা উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, তাদেরকে পরিপূর্ণ মানুষ হয়ে উঠতে হবে। এজন্য পড়াশুনার পাশাপাশি খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহন করতে হবে। নিজেদেরকে জনগনের প্রতি দায়বদ্ধ দেশপ্রেমে উজ্জীবিত দক্ষ নাগরিক ও ভাল মানুষ হিসেবে তৈরি করতে হবে। প্রযুক্তিতে দক্ষ, সততা-নিষ্ঠা ও দেশপ্রেমে উজ্জীবিত পরিপূর্ণ নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

 

 

শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগ, বিদ্যুৎসহ সকল সেক্টরে আমুল পরিবর্তন হয়েছে। এ উন্নয়নকে আমাদের ধরে রাখতে হবে।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের রুটিন দায়িত্বে নিয়োজিত মহাপরিচালক প্রফেসর মোহাম্মদ শামছুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর, রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনার মো. নুর-উর-রহমান, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মো: জিয়াউল হক, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডেও চেয়ারম্যান একেএম ছায়েফ উল্যাহ এবং মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড রাজশাহীর চেয়ারম্যান প্রফেসর মো. আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ বক্তব্য প্রদান করেন।

উল্লেখ্য, জাতীয় পর্যায়ে চারটি ইভেন্টে মোট ৫২৮জন শিক্ষার্থী ৪৭তম গ্রীষ্মকালীন জাতীয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতার চুড়ান্ত পর্বে অংশগ্রহণ করছে। ৪ অক্টোবর পর্যন্ত চূড়ান্ত পর্বের খেলা চলবে।

পরে বিভিন্ন গ্রুপের অংশগ্রহনে মনোজ্ঞ ডিসপ্লে অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলার কথা/বুলবুল অাহমেদ/৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*