Home » উত্তরের খবর » রাজশাহীতে কালবৈশাখীর ছোবল, বজ্রপাতে নিহত ১
রাজশাহীতে কালবৈশাখীর ছোবল, বজ্রপাতে নিহত ১

রাজশাহীতে কালবৈশাখীর ছোবল, বজ্রপাতে নিহত ১

নিজস্ব প্রতিবেদক ০
রাজশাহীতে সোমবার আকস্মিক কালবৈশাখীতে আম ও লিচুসহ উঠতি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এসময় বজ্রপাতে পুঠিয়ায় এক কৃষক নিহত হয়েছে। বৃষ্টির পানিতে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা দেখা দেয়ায় স্কুল-কলেজ ও অফিসগামী মানুষকে ভোগান্তিতে পড়তে হয়।

স্থানীয় আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, আজ ৩০ এপ্রিল সোমবার সকাল সোয়া ৮টার দিকে রাজশাহীতে কালবৈশাখী ঝড় শুরু হয়। এ সময় বাতাসের গতিবেগ ছিল ৩০ নটিক্যাল মাইল। ঝড়ের সাথে সাথে শুরু হয় বজ্রসহ বৃষ্টি। সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত আবহাওয়া অফিস ৬১ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করেছে, যা চলতি মৌসুমে রাজশাহীতে প্রথম ভারী বৃষ্টিপাত। আর পাঁচ মিনিটের কালবৈশাখী ঝড়ে আম ও লিচুসহ উঠতি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

পবা, গোদাগাড়ী, বাঘা, চারঘাটসহ বিভিন্ন উপজেলার গ্রামাঞ্চলে গাছপালা ভেঙ্গে পড়েছে। বেশ কিছু কাঁচা ঘর-বাড়ির টিনের চালা উড়ে গেছে।

ঝড়ের সময় বজ্রপাতে পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর ইউনিয়নের নওপাড়া গ্রামে ইয়াকুব আলী নামের এক কৃষক নিহত হয়েছে। তিনি ওই গ্রামের আরজ উদ্দিনের ছেলে।

বানেশ্বর ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান গাজী সুলতান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সকালে বেগুনের জমিতে কীটনাশক প্রয়োগের সময় বজ্রপাত হলে ঘটনাস্থলেই ইয়াকুব আলীর মৃত্যু হয়।

এদিকে, কালবৈশাখী বয়ে যাওয়ার পরপরই ভারী বর্ষণে নগরীর সাহেব বাজার, উপশহর, দড়িখরবোনা, বর্নালীর মোড়, আমবাগাম, কলাবাগান, লক্ষীপুর, কোর্ট হড়গ্রাম, ষষ্টিতলা, শালবাগান এলাকার কোথাও কোথাও হাটু সমান পানি জমে যায়। এতে যানবাহন ও সাধারণ মানুষের চলাচলে বিঘ্ন ঘটে। নগরীর শালবাগান সপুরা এলাকায় রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড মডেল স্কুল ও কলেজের সামনের মহাসড়কে হাটু পানি পর্যন্ত জমে যায়। ফলে স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়।

রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়া সহকারী আনোয়ারা বেগম জানান, সোমবার রাজশাহীতে ঝড়ের সময় বাতাসের গতিবেগ ছিল ৩০ নটিক্যাল মাইল। সকাল ৮টা ১৬ মিনিটে ঝড় শুরু হয়। চলে ৮টা ২১ মিনিট পর্যন্ত। এ সময় বজ্রসহ ভারী বর্ষণ হয়। সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ৬১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। তবে কোথাও শিলাবৃষ্টি হয়নি।

বাংলার কথা/এপ্রিল ৩০, ২০১৮