Home » উত্তরের খবর » ঠাকুরগাঁওয়ের ডিসির বদলি বাতিল চায় চম্পাও
ঠাকুরগাঁওয়ের ডিসির বদলি বাতিল চায় চম্পাও

ঠাকুরগাঁওয়ের ডিসির বদলি বাতিল চায় চম্পাও

ঠাকুরগাঁও সংবাদদাতা ০

চম্পা আক্তার। শারীরিক প্রতিবন্ধী। শহর থেকে ১৮ কিলোমিটার পশ্চিমে সদর উপজেলার মোলানী এলাকার একতা প্রতিবন্ধী স্কুলের ছাত্রী সে। গতকালই সে শুনেছে ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বদলি হয়ে চলে যাচ্ছেন, তার বদলি প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন করা হবে। এ কথা শুনেই শিক্ষকদের কাছে শহরের মানববন্ধনে অংশ নেয়ার আবদার করে সে। অবশেষে তার আবদার রক্ষা করতে মঙ্গলবার সকালে তাকেসহ অন্যান্য শিক্ষার্থীদের নিয়ে শহরে আসেন স্কুলটি পরিচালক আমিরুল ইসলাম।

শুধু চম্পা না, শহরের অনেক শিক্ষার্থীও এসেছিল ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়ালের বদলি রুখতে।

চম্পা জানায়, মাঝে মধ্যেই জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল তাদের স্কুলে যেত। নিয়ে যেত চকলেটসহ বিভিন্ন ফলমূল। সুন্দর সুন্দর গল্প বলতো তাদের। এ থেকেই জেলা প্রশাসকের প্রতি তার ভালোবাসা। এজন্যই সে এসেছে এই আন্দোলনে।

সে জানায়, সরকারের কাছে আবেদন যেন বর্তমান জেলা প্রশাসকই থাকেন আরও কিছুদিন। আর তাকে না রাখা গেলে যেন তার মতোই ভালো মানুষকে পাঠানো হয় এ জেলায়। যেন তাদের সুন্দর সুন্দর গল্প শোনায়। এটাই আবদার চম্পার।

এদিকে, জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়ালের বদলি প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন, গণসাক্ষর কর্মসূচি, সড়ক অবরোধ ও গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে।

কালে বদলি প্রত্যাহারের দাবিতে ঠাকুরগাঁওয়ের সাধারণ মানুষের ব্যানারে এই কর্মসূচি পালন করা হয়।

এসময় বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থী, জনতা ঠাকুরগাঁওয়ের সকল যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ করে অবস্থান ধর্মঘট পালন করেন। পরে মহাসড়ক অবরোধ করে কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করে।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে এসময় বক্তব্য রাখেন, ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সভাপতি আবু তোরাব মানিক, জেলা মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সূচরিতা দেব, জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জিএম এম সিরাজী মিজান, সদর উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি শাহনেওয়াজ কাদির শাকিল চৌধুরী, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সানোয়ার পরভেজ পুলক, পীরগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের আহ্বায়ক মো. চঞ্চল, ছাত্রনেতা সোহেল, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মো. কায়েস, সমাজসেবক সুজন খান প্রমুখ।

বক্তারা এ সময়, ঠাকুরগাঁওয়ের মানবিক শিক্ষক হিসেবে পরিচিত ডিসি আব্দুল আওয়ালের বদলি আদেশ অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবি জানান সরকারের কাছে। এছাড়া ঠাকুরগাঁও জেলার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য ডিসি আব্দুল আওয়ালকে আরও কিছুদিন রাখার আহ্বান জানান বক্তারা।

কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, শিক্ষক, সাংবাদিক, শিক্ষার্থী ও প্রতিবন্ধীসহ সকল শ্রেণিপেশার মানুষ। এসময় আন্দোলনকারীরা রাজপথে অবস্থান নিয়ে জেলা প্রশাসকের বদলি প্রত্যাহারের দাবিতে স্লোগান দিতে থাকেন। পরে প্রশাসকের আশ্বাসে সড়ক অবরোধ ও অবস্থান কর্মসূচি প্রত্যাহার করে নেন আন্দোলনকারীরা। শিক্ষার্থীরা পরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে অবস্থান ধর্মঘট পালন করেন।

উল্লেখ্য, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি দেশের ২২ জন জেলা প্রশাসকের রদ-বদলের প্রজ্ঞাপন জারি হয়েছে। সেই প্রজ্ঞাপনে ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়ালকে যশোরের জেলা প্রশাসক হিসেবে বদলির আদেশ জারি করা হয়েছে। একই সঙ্গে পাট ও বস্ত্রমন্ত্রীর একান্ত সচিব মো. আক্তারুজ্জামানকে ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক হিসেবে বদলি করা হয়েছে।

বাংলার কথা/সাইফ/২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮