Home » উত্তরের খবর » বিশ্ববিদ্যালয়ের অনিয়ম প্রতিরোধে রাকসুকে সচল করার দাবি
বিশ্ববিদ্যালয়ের অনিয়ম প্রতিরোধে রাকসুকে সচল করার দাবি

বিশ্ববিদ্যালয়ের অনিয়ম প্রতিরোধে রাকসুকে সচল করার দাবি

রাবি প্রতিনিধি ০
বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলে শিক্ষার্থীদের হত্যাকাণ্ডের শিকার হওয়া, ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীদের দ্বারা লাঞ্চিত হওয়া, সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনার জন্য অনুমতি নেওয়ার দীর্ঘসূত্রিতা, শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ে শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের দ্বারা নির্যাতনের শিকার, ও ছাত্র-ছাত্রীদের সঙ্গে শিক্ষকদের অসদাচারণসহ পরীক্ষার ফলাফলে প্রভাবিত করার হুমকি-ধামকি ইত্যাদি অনিয়মের কাছে শিক্ষার্থীরা জিম্মি হয়ে হতাশ হয়ে পড়ছে। আর এমন সব অনিয়ম প্রতিরোধে ব্যবস্থা কি হতে পারে! সেটাও উঠে এসেছে রাকসুকে (ছাত্র সংসদ নির্বাচন) সচল করার দাবির মধ্য দিয়ে।

 

বলছিলাম রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) নাট্য সংগঠন ‘সমকাল নাট্যচক্র’র ৫৯তম প্রযোজনা ‘জোঁক’ নাটকের বিশেষ কিছু খণ্ডচিত্রের কথা। আজ ২৯ এপ্রিল শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে বিকেল ৫টা থেকে নাটকের প্রদর্শনী শুরু হয়। দুটি পর্বে নাটকটি প্রদর্শিত হয়।

 
নাটকটি সম্পর্কে সমকাল নাট্যচক্র’র সাধারণ সম্পাদক শিমুল সিদ্দিকী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসনিক শক্তি থেকে শুরু করে বিভিন্ন অপ্রত্যাশিত শক্তি সাধারণ শিক্ষার্থীদের বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করছে। শিক্ষার নামে চাঁদাবাজি, মেয়েদের উত্যক্ত করা, ভাংচুর এসব ঘটনা ঘটাচ্ছে।  মূলত এসব ঘটনাই নাটকে উপজীব্য হয়ে উঠে এসেছে।

 

জোঁক নামকরণটি সম্পর্কে শিমুল সিদ্দিকী বলেন, ছাত্র বেশধারী যারা সন্ত্রাসী কার্যকলাপ চালায় তাদের চরিত্রের প্রতিকী হিসাবে এই নাটকের নাম দেওয়া হয়েছে ‘জোঁক’।

 

নাটকটির রচনা ও নির্দেশনায় ছিলেন আজমল হুদা মিঠু। নাটকটিতে অভিনয় শিল্পী হিসেবে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সানজানা আরেফিন, জাহিদ হাসান তুর্য, উজ্জ্বল হোসেন, সানিউর রহমান, স্বর্ণা, আজিজুন নাহার মিম, মোস্তাফিজুর রহমান মিঠু ও শিমুল সিদ্দিকী প্রমুখ। এসময় মিলনায়তনে দুই শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

 

বাংলার কথা/আলী ইউনুস/এপ্রিল ২৯, ২০১৭