Today December 13, 2017, 1:57 am |
Home » উত্তরের খবর » ১৪ হাজার কর্মসংস্থানের সুযোগ নিয়ে বঙ্গবন্ধু হাই-টেক পার্কের নির্মাণ শুরু

১৪ হাজার কর্মসংস্থানের সুযোগ নিয়ে বঙ্গবন্ধু হাই-টেক পার্কের নির্মাণ শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক ০
রাজশাহীতে শুরু হলো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্কের অবকাঠামো নির্মাণ। আজ ১৮ জুলাই মঙ্গলবার বিকেলে নগরীর জিয়ানগর এলাকায় তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর এই পার্কের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সীমানা প্রাচীর ও গেট নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। পার্কটির নির্মাণ কাজ শুরু হওয়ায় রাজশাহীর তরুণ প্রজন্মের ভেতর স্বপ্নের হাতছানি দিচ্ছে। নির্মাণ শেষে এখানে ১৪ হাজার তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হবে।

 

গত ১৩ জানুয়ারি হাই-টেক পার্কের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক পলক। এরপর সেখানে মাটি ভরাটের কাজ চলে। এবার উদ্বোধন হলো সীমানা প্রাচীর ও গেট নির্মাণের। এর মধ্য দিয়েই দৃশ্যমান হতে শুরু করল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্ক।

নির্মাণ কাজের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, হাই-টেক পার্কের নির্মাণ শেষে এখানে ১৪ হাজার তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হবে। এই হাই-টেক পার্কের মধ্য দিয়ে ২০২১ সাল নাগাদ রাজশাহীকে সারা বিশ্বই চিনবে। তিনি বলেন, রাজশাহীর মানুষ শুধু শ্রমনির্ভর থাকবে না। ভারতের ব্যাঙ্গালোর, আমেরিকার সানফ্রান্সিসকো ও ক্যালিফোর্নিয়ার সিলিকন সিটির মতো বঙ্গবন্ধু হাই-টেক পার্কে বিশ্বমানের সফটওয়্যার তৈরি হবে। শুধু মেধার বিকাশ ঘটিয়ে রাজশাহীর আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন করা হবে। পার্কে ১০ তলা বিশিষ্ট একটি এমটিবি ভবন নির্মাণ করা হবে।

 

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্কের প্রকল্প পরিচালক একেএম ফজলুল হক জানান, এমটিবি ভবন ছাড়াও ৬২ হাজার বর্গফুট আয়তনের পাঁচতলা বিশিষ্ট একটি আইটি ইনকুবেটর কাম ট্রেনিং সেন্টার স্থাপন করা হবে এখানে। যা রাজশাহীর আর্থ সামাজিক উন্নয়নে বড় ধরনের অবদান রাখবে। তিনি জানান, সিলিকন সিটিতে প্রশিক্ষণ, কর্মসংস্থান- দুটোই দেয়া হবে। প্রথমে প্রশিক্ষণ ও পরে কাজ দেয়া হবে আগ্রহীদের। যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালির আদলে এই সিলিকন সিটি নির্মিত হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের সানফ্রান্সিকো ও সান হোসে শহরের মাঝামাঝিতে ৩শ’ বর্গমাইল এলাকাজুড়ে গড়ে ওঠা সিলিকন ভ্যালি ইন্টারনেট সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের কেন্দ্র হিসেবে বিশ্বব্যাপী পরিচিত। সেটির আদলে গড়ে উঠতে যাওয়া রাজশাহীর এই সিলিকন সিটিতেও তৈরি হবে বিশ্বমানের প্রযুক্তি পণ্য।

 

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি বিভাগের শিক্ষার্থী আখেরুজ্জামান বলেন, রাজশাহীতে সিলিকন সিটি শুরু হলে আমাদের মতো শিক্ষার্থীদের চাকরির জন্য আর কোথাও দৌড়াতে হবে না। এটি আমাদের জন্য সুখবর। রাজশাহী কলেজের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী ফারাজানা করিম বলেন, সিলিকন সিটি আমাদেরকে স্বপ্ন দেখাচ্ছে। রাজশাহীতে আরো শিল্প-কারখানা গড়ে উঠলে এ অঞ্চলের বেকার সমস্যা দূর হবে।

 

২০১১ সালের ২৪ নভেম্বর রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত এক জনসভায় সিলিকন সিটি নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে গত বছরের ২৩ ডিসেম্বর একনেক সভায় প্রকল্পটি অনুমোদন পায়। পদ্মাপাড়ে ৩১ দশমিক ৬৩ একর জমির ওপর গড়ে উঠতে যাওয়া এই পার্কটি নির্মাণে সম্ভাব্য ব্যয় ধরা হয়েছে ২৮১ কোটি ১৯ লাখ টাকা।

মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্কের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রকল্প পরিচালক একেএম ফজলুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন- রাজশাহী-২ আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও মহানগর সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন ও সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি বেগম আখতার জাহান।

 

এছাড়াও অনুষ্ঠানে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শাহীন আক্তার রেনী, সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ মহা. হবিবুর রহমানসহ বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের শীর্ষ সরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলার কথা/জুলাই ১৮, ২০১৭

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: ড. প্রদীপ কুমার পান্ডে
সম্পাদক: শ.ম সাজু
সহকারী সম্পাদক (রংপুর বিভাগ): তিতাস আলম
২০৯ (৩য় তলা), বোয়ালিয়া থানার মোড়, কুমারপাড়া, রাজশাহী। ফোন: ০১৯২৭-৩৬২৩৭৩, ই-মেইল: banglarkotha.news@gmail.com