Today December 13, 2017, 12:47 am |
Home » অপরাধ ও আইন » ধর্ষণের অভিযোগে আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

ধর্ষণের অভিযোগে আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

লালমনিরহাট প্রতিনিধি ০
বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক স্কুল ছাত্রীকে দিনের পর দিন ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে নুরুজ্জামান (৪৫) নামে এক আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায়।

অভিযুক্ত নুরুজ্জামান উপজেলার সিন্দুর্ণা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক। এ ঘটনায় ১৯ নভেম্বর রোববার রাতে তার বিরুদ্ধে হাতীবান্ধায় থানায় মামলা দায়ের করেছেন মেয়েটির বাবা। পরদিন সোমবার লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীর প্রয়োজনীয় শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, সিন্দুর্না ইউনিয়নের কাচারি এলাকার বাসিন্দা আওয়ামী লীগ নেতা নুরুজ্জামান এলাকায় প্রভাবশালী হিসেবে পরিচিত। দুই সন্তানের জনক নুরুজ্জামানের স্ত্রী স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দীর্ঘ দিন ধরে শিক্ষকতা করছেন। বর্তমানে তিনি অসুস্থ থাকায় নুরুজ্জামানের চোখ পড়ে প্রতিবেশী এক স্কুল ছাত্রীর উপর। দুরসম্পর্কের আত্মীয় হিসেবে মেয়েটি মামা হিসেবেই মানতো তাকে। সেই মেয়েটিকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিক বার ধর্ষণ করেছে  নুরুজ্জামান। ইতোমধ্যে মেয়েটি আগামি এসএসসি পরীক্ষা দেওয়ার জন্য ফরম পূরণ করেছে। সেই লক্ষে ঠিকঠাক পড়াশোনাও করছিল সে। চলতি মাসের ২ তারিখে নুরুজ্জামান ফাঁকা বাড়িতে ডেকে নিয়ে মেয়েটিকে আবারও ধর্ষণ করে বলে মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। পরে মেয়েটি মানসিক ও শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে পরিবারের লোকজন বিষয়টি শুনে নুরুজ্জামানের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দায়ের করে।

ধর্ষণের শিকার মেয়েটি জানান, গত বছরের ২১ নভেম্বর নুরুজ্জামান তাকে এক আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে নিয়ে যায়। ঐ বাড়িতে একজন মহিলা ছিলেন। সেখানে মেয়েটিকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নুরুজ্জামান ধর্ষণ করেন। এরপর থেকে মাঝে মধেই ওই বাড়িতে নিয়ে গিয়ে মেয়েটির সাথে দৈহিক সম্পর্কে লিপ্ত হন নুরজ্জামান। এর কিছুদিন পর মেয়েটি বিয়ের চাপ দিলে নুরুজ্জামানের সুর পাল্টে যায় বলে জানিয়েছে মেয়েটি। ফলে সে মানসিক ও শারীরিকভাবে ভেঙ্গে পড়লে রোববার দুপুরে তাকে হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

মেয়েটির মা জানান, নুরুজ্জামানকে আমি ভাই হিসেবে মানতাম। কিন্তু সেই নুরুজ্জামানই আমার মেয়ের সর্বনাশ করেছে। আমি এর ন্যায় বিচার চাই।

মেয়েটির বাবা বলেন, ‘নুরুজ্জামান আওয়ামী লীগের নেতা। তার কাছে আমরা অসহায়। এরপরও ন্যায় বিচার পাওয়ার আশায় রবিবার রাতে হাতীবান্ধায় থানায় মামলা দায়ের করেছি।’

এ ব্যাপারে জানতে অভিযুক্ত নুরুজ্জামানের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

হাতীবান্ধা থানার ওসি শামীম হাসান সরদার বলেন, মামলা গ্রহণের পর থেকেই নুরুজ্জামানকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। পাশাপাশি যেসব বাড়িতে নিয়ে গিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করা হয়েছে, তাদেরকেও আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানান তিনি।

বাংলার কথা/ইলিয়াস বসুুনিয়া পবন/নভেম্বর ২১, ২০১৭

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: ড. প্রদীপ কুমার পান্ডে
সম্পাদক: শ.ম সাজু
সহকারী সম্পাদক (রংপুর বিভাগ): তিতাস আলম
২০৯ (৩য় তলা), বোয়ালিয়া থানার মোড়, কুমারপাড়া, রাজশাহী। ফোন: ০১৯২৭-৩৬২৩৭৩, ই-মেইল: banglarkotha.news@gmail.com