Today November 25, 2017, 7:56 am |
Home » অপরাধ ও আইন » দিল্লির আবাসনে বাংলাদেশি গৃহপরিচারিকা নিষিদ্ধ

দিল্লির আবাসনে বাংলাদেশি গৃহপরিচারিকা নিষিদ্ধ

বাংলার কথা ডেস্ক ০

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির কাছেই নয়ডায় বাংলাদেশি পরিচারিকাদের নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল স্থানীয় মহাগুন মডার্ন আবাসন। গত বুধবার ওই আবাসনে বাংলাদেশি এক পরিচারিকা জোহরা বিবিকে আটকে রাখা হয় বলে অভিযোগ। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার ওই আবাসনে ভাঙচুর চালায় শ’তিনেক উন্মুক্ত জনতা, যাদের বেশির ভাগই বাংলাদেশি ছিল বলে অভিযোগ করেছে ওই আবাসন কর্তৃপক্ষ।
এরপরেই মহাগুন মডার্ন আবাসনে বাংলাদেশি পরিচারিকাদের নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নয়ডার মহাগুন মডার্ন আবাসনের বাসিন্দা মিতুল শেঠির ঘরে পরিচারিকার কাজ করতেন বাংলাদেশি গৃহপরিচারিকা জোহরা বিবি। জোহরা বিবি মিতুল শেঠির ঘরে এক বয়স্ক মানুষকে দেখাশোনার কাজ করতেন।
সম্প্রতি মিতুল শেঠির ঘর থেকে ১০ হাজার রুপি চুরি যায়। এই ঘটনায় সন্দেহ গিয়ে পড়ে জোহরা বিবির ওপর। এরপরই জোহরা বিবিকে আটকে রাখা হয় বলে অভিযোগ ওঠে। আর এই খবর জানাজানি হতেই ওই আবাসনে কাজ করা শ’তিনেক বাংলাদেশি ওই আবাসনে চড়াও হয় ভাঙচুর চালায়।
উল্লেখ্য, নয়ডার মহাগুন মডার্ন আবাসনে দুই হাজার ৭৫০টির মতো ফ্ল্যাট রয়েছে। যেসব ফ্ল্যাটের অধিকাংশ ঘরে পরিচারিকার কাজ করেন বাংলাদেশিরা। বুধবারের ঘটনার পর ওই আবাসনের তরফে পুলিশের কাছে অভিযোগ করা হয়, জোহরা বিবি বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী। তবে পুলিশ জানিয়েছে, জোহরা বিবির কাছে বৈধ সমস্ত কাগজপত্র রয়েছে। ফলে জোহরা বিবির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে না পারায় মহাগুন মডার্ন আবাসনের বেশির ভাগ বাসিন্দাই বাংলাদেশি পরিচারিকাদের আবাসনে ঢুকতে না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গেছে।
আবাসনের একাধিক বাসিন্দা জানান, বুধবারের ঘটনার পর থেকে আমরা রীতিমতো সন্ত্রস্ত হয়ে রয়েছি। তাই ঠিক করা হয়েছে, বাংলাদেশি পরিচারিকাদের আর এই আবাসনে ঢুকতে দেওয়া হবে না। আমরা ওদের সমস্ত টাকা-পয়সা মিটিয়ে দেব। এখন থেকে বেসরকারি এজেন্সিগুলোর মাধ্যমে পরিচারিকা নেব আমরা।
তবে অন্যদিকে বুধবারের ঘটনায় জোহরা বিবির স্বামী আবদুস সাত্তার এবং অন্য বাংলাদেশিরা জানান, আমরা জোহরার খোঁজ নিতেই আবাসনে গিয়েছিলাম। কিন্তু ওখানকার আবাসিকরাই আমাদের প্রাণে মারার হুমকি দেয় এবং আবাসনের নিরাপত্তারক্ষীরা আমাদের মারধর শুরু করে। এরপর আমরা ভয় পেয়ে ইট ও পাথর ছুড়েছিলাম শুধুমাত্র আত্মরক্ষার জন্যই। এর জন্য যদি বাংলাদেশি পরিচারিকারা ওই আবাসনে কাজ হারান তাতে আমাদের কিছু করার নেই। আমরা এই অত্যাচার ও অনিয়মকে সহ্য করব না।

 

বাংলার কথা/এনটিভি অনলাইন/জুলাই ১৫, ২০১৭

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: ড. প্রদীপ কুমার পান্ডে
সম্পাদক: শ.ম সাজু
সহকারী সম্পাদক (রংপুর বিভাগ): তিতাস আলম
২০৯ (৩য় তলা), বোয়ালিয়া থানার মোড়, কুমারপাড়া, রাজশাহী। ফোন: ০১৯২৭-৩৬২৩৭৩, ই-মেইল: banglarkotha.news@gmail.com