Today November 25, 2017, 7:54 am |
Home » উত্তরের খবর » আড়াই বছর আগে উধাও হওয়া অজগর উদ্ধার

আড়াই বছর আগে উধাও হওয়া অজগর উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক ০
রাজশাহী মহানগরীর শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যান ও চিড়িয়াখানা থেকে উধাও হওয়ার আড়াই বছর পর একটি অজগর সাপ উদ্ধার করা হয়েছে জেলা জজের বাসভবনের আখ ক্ষেত থেকে। ৪ সেপ্টেম্বর সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে অজগরটি উদ্ধার করে চিড়িয়াখানায় অবমুক্ত করেন সিটি মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল।

 

২০১৫ সালের ২৪ এপ্রিল রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যান ও চিড়িয়াখানার খাঁচা থেকে অজগরটি পালিয়ে যায়। সেই সময় অনেক খুঁজেও অজগরটি পাওয়া যায়নি। অবশেষে আড়াই বছর পর অজগরটির দেখা চিড়িয়াখানা সংলগ্ন জেলা জজের বাসভবনের আখ ক্ষেতে।

 

শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যান ও চিড়িয়াখানার তত্বাবধায়ক ডা. ফরহাদ হোসেন জানান, ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে নওগাঁর ধামইরহাটের আলতাদীঘি বন থেকে অজগরটি ধরে বণ্যপ্রাণী সংরক্ষণ বিভাগ চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করেছিল। তখন সাপটি রাখার মতো নতুন কোনো খাঁচা না থাকায় পুরাতন একটি খাঁচায় সাপটিকে রাখা হয়েছিল। চিড়িয়াখানায় আসার দু’দিন পর অজগরটি একবার পালিয়েছিল। দু’দিন পর পাশের একটি ইঁদুরের গর্তে সাপটি খুঁজে পাওয়া যায়। এরপর ওই বছরের ২৪ এপ্রিল খাঁচার ভাঙ্গা অংশ দিয়ে সাপটি পালিয়ে যায়। পালিয়ে যাওয়ার সময় সাপটি ১০ থেকে ১২ ফুট লম্বা ছিলো। ওজন ছিলো ৭ থেকে ৮ কেজি। কিন্তু এখন সাপটি লম্বায় ১৮ ফুট হয়েছে। ওজন হয়েছে সাড়ে ১৬ কেজি।

আড়াই বছর কি খেয়ে সাপটি বেঁচে ছিল জানতে চাইলে ভ্যাটেরিনারি সার্জন ডা. ফরহাদ হোসেন জানান, জেলাজজের বাসভবনের এরিয়া প্রায় ৬৫ বিঘা। সেখানে ছোট ছোট পুকুর, খাল ও গর্ত আছে। ব্যাঙসহ নানা কীটপতঙ্গও আছে সেখানে। এগুলো খেয়েই অজগরটি বেঁচে ছিল। মূল বাসভবনের বাইরে যে বিশাল এলাকা সেখানে ঝোপঝাড়ও আছে। এতোদিন এই ঝোপঝাড়ে সাপটি লুকিয়ে ছিল। তিনি জানান, সোমবার রাতে অতিরিক্ত গরম কিংবা খাবারের খোঁজে সাপটি হয়তো আখ ক্ষেত থেকে বেড়িয়েছিল।

 

অজগরটি ভারতীয় রকি পাইথন প্রজাতির জানিয়ে ডা. ফরহাদ হোসেন জানান, একদিন পেট পুরে খেলে অজগরটি সাত দিন ঘুমিয়ে থাকে। এ প্রজাতির অজগর সাধারণত বনের গাছে থাকে। গাছ বেয়ে সাপটি সোজা দাঁড়াতেও পারে।

 

জেলা জজের বাসভবনে কর্তব্যরত পুলিশের সদস্যরা জানান, সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে প্রথমবার তারা অজগর সাপটি দেখতে পান। কিন্তু সাপটি দ্রুতগতিতে বাসা সংলগ্ন আখ ক্ষেতে ঢুকে পড়ে। এরপর রাত ১০টার দিকে আবার আখ ক্ষেত থেকে সাপটি বেরিয়ে আসে। এসময় পাশেই চিড়িয়াখানার লোকজনকে সংবাদ দিলে তারা গিয়ে সাপটিকে ধরেন।

 

খবর পেয়ে সিটি মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল রাতেই চিড়িয়াখানায় গিয়ে অজগরটি খাঁচায় অবমুক্ত করেন।

বাংলার কথা/সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৭

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: ড. প্রদীপ কুমার পান্ডে
সম্পাদক: শ.ম সাজু
সহকারী সম্পাদক (রংপুর বিভাগ): তিতাস আলম
২০৯ (৩য় তলা), বোয়ালিয়া থানার মোড়, কুমারপাড়া, রাজশাহী। ফোন: ০১৯২৭-৩৬২৩৭৩, ই-মেইল: banglarkotha.news@gmail.com